৯০ অভিবাসনপ্রত্যাশী নিয়ে নৌকাডুবি

লিবিয়া উপকূলে নৌকা উল্টে অন্তত ৯০ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী সাগরে ডুবে গেছেন। উপকূলে অন্তত ১০টি মরদেহ ভাসছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা আইওএম।

বিবিসির খবরে বলা হয়, আজ শুক্রবার এই নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। নৌকাডুবি থেকে বেঁচে আসা তিন ব্যক্তি জানিয়েছেন, ডুবে যাওয়া ব্যক্তিদের বেশির ভাগই পাকিস্তানের নাগরিক। তাঁদের সঙ্গে লিবিয়ার কয়েকজন নাগরিকও ছিলেন। বেঁচে আসা তিনজনের মধ্যে দুজন সাঁতরে ও অপরজন মাছ ধরার নৌকায় করে তীরে আসতে সক্ষম হন।

আইওএম এক বিবৃতিতে জানায়, লিবিয়ার উপকূলে অন্তত ১০টি লাশ ভাসতে দেখা গেছে।

প্রায় চার বছর ধরে আফ্রিকা ও এশিয়ার কয়েকটি দেশ থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশী ব্যক্তিরা ঝুঁকি নিয়ে সাগরপথে ইউরোপে ঢোকার জন্য লিবিয়াকে প্রধান ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। এ ধরনের অভিবাসন–প্রক্রিয়া নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলো উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছে। তারা অভিবাসীদের সংখ্যা হ্রাস এবং অভিবাসন–প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত দেশগুলোকে চিহ্নিত করার বিষয়ে তৎপর রয়েছে। এ লক্ষ্যে গত বছর ইইউ লিবিয়ার কোস্টগার্ডের সাহায্য চেয়ে একটি চুক্তি করে। ওই চুক্তি অনুযায়ী কোস্টগার্ডকে অভিবাসীদের ইইউর অভিমুখে যাওয়া ঠেকাতে ও লিবিয়া থেকে ফেরত পাঠাতে বলা হয়।

তবে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থাগুলো ইইউর এমন আচরণকে অমানবিক হিসেবে দেখছেন।