কুয়েতে অবৈধ বিদেশিদের সাধারণ ক্ষমা, স্বস্তিতে হাজার হাজার বাংলাদেশি!

উপসাগরীয় ধনী দেশ কুয়েত অবৈধভাবে বসবাসরত বিদেশিদের জন্য সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে। আজ (মঙ্গলবার) কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত ঘোষণা জারি করেছে। এ ঘটনা দেশটিতে অবৈধভাবে বসবাসরত হাজার হাজার বাংলাদেশির মাঝে স্বস্তি এনে দিয়েছে।

এর ফলে দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশিসহ সব দেশের অবৈধ শ্রমিকরা নির্দিষ্ট জরিমানার বিনিময়ে কুয়েতে বৈধভাবে বসবাস করতে পারবেন অথবা জরিমানা না দিয়ে যার যার দেশে ফিরে যেতে পারবেন।

কুয়েতে কর্মরত বাংলাদেশি হেল্থ টেকনোলজি প্রফেশনাল মিজান আল রহমান এ প্রসঙ্গে কালের কণ্ঠকে বলেন, আগামী ২৯ জানুয়ারি থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই সুযোগ থাকবে অবৈধ বসবাসকারীদের জন্য। অন্যান্য অবৈধদের মতো এখানে বসবাসরত বাংলাদেশিদের জন্যও একটা বিশাল সুখবর এটা। এজন্য কুয়েত সরকারকে ধন্যবাদ জানাতেই হয়।

তবে মিজান মনে করেন, অনেক বাংলাদেশিই হয়তো এটা জানবে না যদি না প্রচারটা ঠিক মতো হয়।

অপর প্রবাসী কর্মী সালেহ আমিন বলেন, দূতাবাস যেন তাদের ফেসবুক পেজসহ সব মিডিয়ায় এই সুখবরটা ফলাও করে প্রচার করে। আমরা অনেকদিন ধরে এমন একটা খবরের আশায় ছিলাম। এখানকার সরকারকে কিছু টাকা জরিমানা দিয়ে এবার বৈধ হওয়া যাবে- এটা নিশ্চিন্ত করছে সবাইকে।

মিজান আল রহমান আরো বলেন, আর যারা দেশে ফিরে যেতে চাইছিল অনেকদিন ধরে কিন্তু অবৈধ হওয়ার কারণে যেতে পারছিল না- এটা তাদের জন্য বিনা জরিমানায় সুন্দরমতো দেশে ফেরার সুযোগ করে দিয়েছে। প্রবাস ছেড়ে দেশে গিয়ে স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য অনেকেরই মন আঁকুপাকু করছিল- এটা এখন তাদের জন্য বড় সুসংবাদ।

তবে যাদের নামে আদালতে মামলা চলছে তারা এই সুযোগ পাবেন না। তারাও এই সুযোগের বাইরে থাকবেন যাদের ওপর কুয়েতে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

এমন সুযোগ ২০১৬ সালে সর্বশেষ দিয়েছিল কুয়েত সরকার। এরপর এ বছরের শুরুতেই দেওয়া হলো। অনেক সময় বেশ কয়েক বছর অপেক্ষা করতে হয় এ ধরনের সাধারণ ক্ষমার জন্য।

একটি সূত্র জানায়, এবার জরিমানার পরিমাণ ৬০০ কেডি (কুয়েতি দিনার) যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১ লাখ ৬৬ হাজার ৩১৭ টাকা (আজকের মুদ্রা বিনিময় দর অনুযায়ী) বলে জানা গেছে। আগেরবারের সাধারণ ক্ষমায়ও জরিমানার পরিমাণ তাই ছিল। সাধারণ ক্ষমার প্রচলিত নিয়ম মোতাবেক, রেসিডেন্সি লঙ্ঘনকারী যারা এই সুযোগ নিয়ে কুয়েত ত্যাগ করবে তারা নতুন ভিসা নিয়ে ফের কুয়েতে যেতে পারবেন। তবে বিষয়ে বিস্তারিত এখনও জানা যায়নি।

সাধারণ ক্ষমা বিষয়ে মঙ্গলবার প্রকাশিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ খালেদ আল জাররাহ আল সাবাহর স্বাক্ষর রয়েছে।