শিক্ষানবিশ কর্মী নেবে জাপান

কারিগরি খাতে শিক্ষানবিশ কর্মী নেওয়ার জন্য বাংলাদেশের সাথে এক সহযোগিতা স্মারকে স্বাক্ষর করেছে জাপান।

সোমবার টোকিওতে দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত ওই সমঝোতা স্মারকে তৈরি পোশাক, কৃষি ও খাদ্য মান্নোয়নের শিক্ষানবিশ কর্মী নেওয়ার কথা উল্লেখ করা হয় বলে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস সচিব শিপলু জামান জানিয়েছেন।

তিনি জানান, তিন থেকে পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য নেওয়া এসব কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেবে জাপান।

বাংলাদেশের পক্ষে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব নমিতা হালদার এবং জাপানের পক্ষে দেশটির হেলথ, লেবার ও ওয়েলফেয়ার মন্ত্রণালয়ের পলিসি-সমন্বয় বিষয়ক ভাইস মিনিস্টার জিনিচি মিয়ানো, বিচার বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক ভাইস মিনিস্টার হিরোমু কুরোকাওয়া এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কন্সুলার বিষয়ক ব্যুরোর মহা-পরিচালক কোইচি আইবোশি সহযোগিতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

এসময় জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা ও জাপানের উচ্চ-পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

স্মারক স্বাক্ষর শেষে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব নমিতা হালদার বলেন, “ টেকনিক্যাল ইন্টার্ন নিয়োগে সপ্তম দেশ হিসাবে বাংলাদেশ, জাপানের সাথে এই স্মারক সই করলো। জাপানের ৭৭টি পেশার ১৩৭টি কাজের জন্য বাংলাদেশের স্কিল্ড ও সেমি-স্কিল্ড টেকনিক্যাল ইন্টার্নদের জাপানি কাজে প্রশিক্ষণ ও জ্ঞানার্জন করে, জাপানে তিন থেকে পাঁচ বছর কাজ করার সুযোগ আরো বৃদ্ধি করবে।”
“কাজ শেষে তাঁরা দেশে ফিরে, জাপানি প্রযুক্তি ও জ্ঞানকে দেশের উন্নয়নে কাজে লাগাতে পারবেন। বাংলাদেশ সরকার যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করছে। যেহেতু আমাদের স্কিল্ড ও সেমি-স্কিল্ড লোকের প্রাচুর্যতা রয়েছে তাই এই সুযোগ কে আমরা গ্রহণ করে কাজে লাগাতে পারি।”

সহযোগিতা স্মারক স্বাক্ষরের পাশাপাশি দু’পক্ষের মধ্যে একটি দ্বিপক্ষীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় মানব সম্পদ উন্নয়নে জাপান-বাংলাদেশ পারষ্পরিক সহযোগিতার বৃদ্ধির নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।