করোনার ভ্যাকসিন সেপ্টেম্বর নাগাদ তৈরি হতে পারে

করোনা ভাইরাসের একটি ভ্যাকসিন আগামী সেপ্টেম্বর মাস নাগাদ তৈরি হতে পারে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভ্যাকসিনোলজির এক অধ্যাপক এমনটাই দাবি করেছেন।

অক্সফোর্ডের ওই অধ্যাপকের নাম সারাহ গিলবার্ট। গতকাল শনিবার তিনি যুক্তরাজ্যের দ্য টাইমস পত্রিকাকে করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে আশার কথা শোনান।

বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইতিমধ্যে ১ লাখ ৮ হাজার মানুষ মারা গেছে। আর বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা প্রায় ১৭ লাখ ৭৬ হাজার।

করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগের ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন দেশে জোর প্রচেষ্টা চলছে। বৈশ্বিক এই প্রচেষ্টায় অক্সফোর্ডের সারাহর দলও যুক্ত।

সারাহ বলেন, কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় তাঁর গবেষণা দলের বানানো ভ্যাকসিন যে কাজ করবে, সে ব্যাপারে তিনি ৮০ ভাগ আত্মবিশ্বাসী।

সারাহ জানান, আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে তাঁরা মানুষের ওপর তাঁদের উদ্ভাবিত ভ্যাকসিনটির পরীক্ষা চালাবেন।

ভ্যাকসিনটি দ্রুত তৈরির লক্ষে কাজ করছে সারাহর দল। এ প্রসঙ্গে সারাহ বলেন, তিনি সপ্তাহের সাত দিনই কাজ করছেন।

আশার পাশাপাশি সতর্কও করেছেন সারাহ। তিনি বলেন, এখনই কেউ হলফ করে বলতে পারবে না যে, এই ভ্যাকসিন কাজ করবেই।

কোভিড-১৯ রোগের ভ্যাকসিন তৈরিতে ১২ থেকে ১৮ মাস সময় লাগতে পারে বলে আগে জানিয়ে ছিলেন অন্য গবেষকেরা। এখন অক্সফোর্ডের গবেষকেরা বলছেন, ছয় মাস লাগবে।

সারাহ বলেন, সব কিছু ঠিকমতো এগোলে সেপ্টেম্বর নাগাদ ভ্যাকসিন তৈরি হয়ে যাবে। এই ভ্যাকসিন কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় কাজ করবে বলে তিনি আশাবাদী।

সারাহ জানান, ভ্যাকসিন তৈরির ক্ষেত্রে অর্থায়ন ও উৎপাদন নিয়ে তিনি ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা করছেন।